বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৫ জানুয়ারি ২০২২

প্রতিষ্ঠার প্রেক্ষাপট

বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন (বামউক) ১৯৬৪ সনে তদানীন্তন পূর্ব পাকিস্তান অর্ডিন্যান্স নং ৪ বলে ইস্ট পাকিস্তান ফিশারিজ ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন নামে প্রতিষ্ঠিত হয়। স্বাধীনতা পরবর্তীকালে ১৯৭৩ সনে এ্যাক্ট নং-২২ দ্বারা “বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন” নামকরণ করা হয়। প্রতিষ্ঠা হতেই অত্র কর্পোরেশন বাংলাদেশে মৎস্য ও মৎস্য  শিল্পের উন্নয়ন, আধুনিক ট্রলারের মাধ্যমে গভীর সমুদ্র হতে মৎস্য আহরণ, স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে আহরিত মৎস্যের অবতরণ, সংরক্ষণ, প্রক্রিয়াকরণ ও বাজারজাতকরণসহ মৎস্য রপ্তানিকারকদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদান করে আসছে। বামউক সরকারী মালিকানাধীন সেবাধর্মী স্বশাসিত বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান, যার প্রধান কার্যালয় সহ ১৩টি ইউনিট সম্পূর্ণরূপে দেশের মৎস্য সম্পদ ও মৎস্য শিল্পের উন্নয়নে নিবেদিত। এ কর্পোরেশন FAO এর সহযোগিতায় ১৯৬৬-৭২ সনে বঙ্গোপসাগরে সাউথ প্যাচেজ, এলিফ্যান্ট পয়েন্ট, ইষ্ট অব সোয়াচ অব নো গ্রাউন্ড ও সোয়াচ অব নো গ্রাউন্ড নামক ৪টি বাণিজ্যিক মৎস্য আহরণ ক্ষেত্র আবিস্কার করে। কর্পোরেশন কাপ্তাই লেকে মিঠা পানির মাছ উৎপাদন সংক্রান্ত কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। ছোট ছোট কাঠের পাল তোলা দেশীয় নৌকা যান্ত্রিকীকরণের মাধ্যমে উপকূলীয় ও সামুদ্রিক মৎস্য শিকারের গোড়াপত্তন করা হয়।  দেশে প্রথমবারের মত কার্পাস সূতার জালের পরিবর্তে নাইলন সূতার জালের প্রচলন এবং ৩টি জাল কারখানা স্থাপন করা হয়।  ট্রলারের মাধ্যমে সমুদ্র হতে মৎস্য আহরণ, আহরিত মাছ অবতরণ, বাজারজাতকরণ, প্রক্রিয়াকরণ এবং সামুদ্রিক মৎস্য ট্রলার নির্মাণের নিমিত্ত ১৯৭৩ সনে জাপান সরকারের কারিগরি সহায়তায় চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দর একটি পূর্ণাঙ্গ মৎস্য বন্দর হিসেবে প্রতিষ্ঠা। কর্পোরেশনের নিজস্ব অর্থায়নে কাওরান বাজারস্থ ২৩-২৪ নং প্লটে বিএফডিসি’র প্রধান কার্যালয়ের ১৫ তলা ভিত সহ ৬ষ্ঠ তলা পর্যন্ত নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে।

 

                                                        ২৩-২৪ কাওরান বাজারে নবনির্মিত বিএফডিসি’র প্রধান কার্যালয়।

 

রুপকল্প (Vision): }জনগণের জন্য স্বাস্থ্যসম্মত মাছ সরবরাহে সহায়তাকরণ।

অভিলক্ষ্য (Mission):}উন্মুক্ত ও বদ্ধ জলাশয়ে মৎস্য উৎপাদন, আহরণ, আহরিত মাছ স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে অবতরণ, অবতরণ পরবর্তী অপচয় হ্রাসকরণ, সংরক্ষণ, প্রক্রিয়াকরণ এবং বিপণন কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করে জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছানো।


  লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য (১৯৭৩ সালের আইন অনুসারে)

মৎস্য সম্পদ ও মৎস্য শিল্পের উন্নয়নের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ;
মৎস্য শিল্প স্থাপন;
মৎস্য আহরণের জন্য ইউনিট প্রতিষ্ঠা এবং মৎস্য সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহারের উদ্দেশ্যে অধিকতর সমন্বিত পদ্ধতির উন্নয়ন;
মৎস্য শিকারের নৌকা, মৎস্য বাহন, স্থল ও জলপথে মৎস্য পরিবহণ এবং মৎস্য শিল্প উন্নয়নের সহিত জড়িত প্রয়োজনীয় সকল সরঞ্জাম ও যন্ত্রাংশ সংগ্রহ, ধারণ ও হস্তান্তর;
মৎস্য এবং মৎস্যজাত পণ্য সংরক্ষণ, প্রক্রিয়াকরণ, বিতরণ এবং বাজারজাতকরণের জন্য ইউনিট প্রতিষ্ঠা;
মৎস্য শিল্প ও মৎস্যজীবী সমবায় সমিতিকে অগ্রিম ঋণ প্রদান;
মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি প্রতিষ্ঠায় উৎসাহ প্রদান;
মৎস্য সম্পদের জরিপ ও অনুসন্ধানের ব্যবস্থা গ্রহণ;
মৎস্য শিকার, প্রক্রিয়াকরণ, পরিবহণ, সংরক্ষণ এবং বাজারজাতকরণের পদ্ধতি সম্পর্কিত গবেষণা এবং প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা বা ব্যবস্থা গ্রহণ;
মৎস্য এবং মৎস্যজাত পণ্য রপ্তানির জন্য প্রতিষ্ঠান স্থাপন;
উপরি-উল্লিখিত সকল বা যে কোন কার্য সম্পাদনের উদ্দেশ্যে আবশ্যকীয় সম্পদ অর্জন, ধারণ ও হস্তান্তর;
 
 

প্রধান কার্যাবলী

  1. সমুদ্র, উপকূল, হাওর ও কাপ্তাই হ্রদ হতে আহরিত মাছের আহরণোত্তর অবচয় রোধকল্পে আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত মৎস্য অবতরণ, সংরক্ষণ, প্রক্রিয়াকরণ ও বাজারজাতকরণ কেন্দ্র স্থাপন;
  2. সামুদ্রিক মৎস্য ট্রলারসমূহের ডকিংসহ মেরামত সুবিধাদি প্রদানের নিমিত্ত স্লিপওয়ে, মেরিন ওয়ার্কশপ, বার্থিং ও বেসিন সুবিধাদি প্রদান;
  3. কাপ্তাই হ্রদ/উন্মুক্ত জলাশয়/পুকুরে মৎস্য উৎপাদন, আহরণ ও বাজারজাতকরণ এবং কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি;
  4. আহরিত মাছের অবচয় রোধকল্পে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত মৎস্য অবতরণ সুবিধাদি প্রদান;
  5. মৎস্য ও মৎস্যজাত দ্রব্যাদি বাজারজাতকরণ, সংরক্ষণ, প্রক্রিয়াকরণ এবং রপ্তানির জন্য সহায়তা প্রদান;
  6. ঢাকা মহানগরীতে ফরমালিনমুক্ত মাছ বিপণন।

 

 

পরিচালনা বোর্ড

বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশনের ৫ সদস্য বিশিষ্ট পরিচালনা বোর্ড রয়েছে।

১। চেয়ারম্যান, বিএফডিসি  -  সভাপতি

২। পরিচালক (অর্থ), বিএফডিসি  -  সদস্য

৩। পরিচালক (ক্রয় ও বিপণন), বিএফডিসি  -  সদস্য

৪। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি (যুগ্মসচিব পদমর্যাদার)-  সদস্য

৫। অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি (অতিরিক্ত সচিব পদমর্যাদার)  -  সদস্য

 

 

 

                                                                       সাংগঠনিক কাঠামো

চেয়ারম্যান

পরিচালক
অর্থ

পরিচালক
ক্রয় ও বিপণন

হিসাব
বিভাগ

অর্থ
বিভাগ

অডিট
বিভাগ

পরিকল্পনা
বিভাগ

প্রশাসন
বিভাগ

বাস্তবায়ন
বিভাগ

বিপণন
বিভাগ

ক্রয়
বিভাগ

   
 

সকল ইউনিট

 

                                               

 

 

                                                 জনবল

ক্র;

পদের শ্রেণি/গ্রেড

অনুমোদিত পদসংখ্রা

১ম শ্রেণি (১-৯ম গ্রেড)

৯৭

২য় শ্রেণি (১০-১২ গ্রেড)

৬৫

৩য শ্রেণি (১৪-১৮ গ্রেড)

৩৬৯

৪র্থ শ্রেণি (১৮-২০ গ্রেড)

২০০

মোট

৭৩১

কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান পদে অতিরিক্ত সচিব পদমর্যাদার ১জন এবং পরিচালক পদে যুগ্মসচিব পদমর্যাদার ২ জন কর্মকর্তা প্রেষণে কর্মরত আছেন;

 

 

 

 

 

কার্যক্রম পরিচালনাকারী ইউনিটসমূহঃ

 

মাল্টিচ্যানেল স্লিপওয়ে ডকইয়ার্ড কেন্দ্র, মৎস্য বন্দর, চট্টগ্রাম

ক্রঃনং

ইউনিটের নাম

১)

কাপ্তাই হ্রদ মৎস্য উন্নয়ন ও বিপণন কেন্দ্র, রাঙ্গামাটি

২)

চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দর, চট্টগ্রাম

৩)

ট্রলার বহর কেন্দ্র, মৎস্য বন্দর, চট্টগ্রাম

৪)

মাল্টিচ্যানেল স্লিপওয়ে ডকইয়ার্ড কেন্দ্র, মৎস্য বন্দর, চট্টগ্রাম

 

৫)

মৎস্য অবতরণ ও পাইকারী মৎস্য বাজার, কক্সবাজার

৬)

মৎস্য অবতরণ ও পাইকারী মৎস্য বাজার, কক্সবাজার

৭)

মৎস্য অবতরণ ও পাইকারী মৎস্য বাজার, খুলনা

৮)

মৎস্য অবতরণ ও পাইকারী মৎস্য বাজার, বরিশাল

৯)

মোহনগঞ্জ মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র, নেত্রকোনা

১০)

ভৈরব মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র, কিশোরগঞ্জ

১১)

সুনামগঞ্জ মৎস্য অবতরণ, সুনামগঞ্জ

১২)

আলীপুর মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র, পটুয়াখালী

১৩)

মহিপুর মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র, পটুয়াখালী

১৪)

রামগতি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র, লক্ষ্মীপুর

১৫)

পাড়েরহাট মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র, পিরোজপুর

১৬)

মৎস্য অবতরণ, সংরক্ষণ ও বিতরণ কেন্দ্র, মনোহরখালী, চট্টগ্রাম

১৭)

ঢাকা মহানগর আধুনিক মৎস্য বিপণন কেন্দ্র, যাত্রাবাড়ী, ঢাকা

১৮)

মৎস্য প্রক্রিয়াকরণ ও বিপণন কেন্দ্র, কক্সবাজার

১৯)

মৎস্য প্রক্রিয়াকরণ ও বিপণন কেন্দ্র, মংলা, বাগেরহাট

২০)

মৎস্য প্রক্রিয়াকরণ ও বিপণন কেন্দ্র, পাগলা, নারায়ণগঞ্জ

 

 

বিগত ০৩ বছরের আয়-ব্যয় ও লাভ

 

কোটি টাকায়

বিবরণ

অর্থ বছর

২০১৮-২০১৯

অর্থ বছর

২০১৯-২০২০

অর্থ বছর

২০২০-২১

আয়

৩৮.৯৩

৪৫.১১

৪৫.০২

ব্যয়

 ৩১.০৩

৩৫.০০

৩৭.১৫

অপারেশনাল লাভ

৭.৯০

১০.১১

৭.৮৭

 

 

চলমান উন্নয়ন প্রকল্প

বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশনে ২২৮.০৩ কোটি টাকা ব্যয়ে নিম্নোক্ত ২টি উন্নয়ন প্রকল্প চলমান আছে। যা যথাসময়ে সমাপ্ত হবে।

ক্রঃ

প্রকল্পের নাম

মেয়াদকাল

প্রাক্কলিত ব্যয় (কোটি টাকায়)

কক্সবাজার জেলায় শুটকি প্রক্রিয়াকরণ শিল্প স্থাপন প্রকল্প

০১/০১/২০২১ হতে ৩১/১২/২০২৩

১৯৮.৭৯

সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলায় মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র স্থাপন প্রকল্প

০১/০৭/২০২১ হতে ৩০/০৬/২০২৪

২৯.২৪

মোট

২২৮.০৩

 

 

 

প্রস্তাবিত নতুন প্রকল্প/ পরিকল্পনা

  1. একনেক এর ১৮ আগস্ট ২০২০ খ্রি: তারিখের সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গভীর সমুদ্রের টুনা, সমজাতীয় পেলাজিক মাছসহ অন্যান্য মাছ আহরণের নিমিত্ত সরকারি অর্থায়নে ডিপ সি ফিশিং ট্রলার ক্রয় ও চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের    ১০ একর জমিতে ‘ফিশ প্রসেসিং এন্ড এক্সপোর্ট কমপ্লেক্স স্থাপনের নিমিত্ত একটি যুগোপযোগী প্রকল্প গ্রহণ করা। উক্ত প্রকল্পের ডিপিপি প্রণয়নের কাজ চলমান আছে;
  2. দেশের সরকারি পুকুর, দিঘি, হ্রদ, খালবিল ইত্যাদি জলাশয়ে মৎস্য উৎপাদন, সংরক্ষণ, প্রক্রিয়াকরণ ও বাজারজাতকরণ কার্যক্রম গ্রহণ করা। তৎপ্রেক্ষিতে সিরাজগঞ্জ ও পাবনা জেলার ৪টি উপজেলায় ৭৮৩টি সরকারি খাস পুকুরে মৎস্য উৎপাদনের নিমিত্ত বিএফডিসি’র অনুকূলে ন্যস্তকরণের নিমিত্ত মন্ত্রণালয় ও মৎস্য অধিদপ্তরে প্রস্তাব প্রেরণ করা হয়েছে;
  3. মাছের প্রাচুর্যতার ভিত্তিতে দেশের সকল জেলায় স্বাস্থ্যসম্মত মৎস্য অবতরণ ও প্রক্রিয়াকরণ কেন্দ্র স্থাপন;
  4. উপকূলীয় এলাকার সুবিধাজনক স্থানে সামুদ্রিক মৎস্য ট্রলার নির্মাণ ও মেরামতের জন্য ডকইয়ার্ড এবং বার্থিং এর জন্য টি-হেড জেটি স্থাপন করা;
  5. কর্পোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারিদের জন্য পেনশন সুবিধা চালুকরণ;
  6. কর্পোরেশনের ২৩-২৪ কাওরান বাজারস্থ বিএফডিসি ভবন ৭তলা হতে ১৫তলা পর্যন্ত উর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ।

 

 

 

 

       
       
       
       
   
 


Share with :

Facebook Facebook